Islam and corona

মুসলমানদের করোনা হবে কি না । ইসলাম এবং করোনা ভাইরাস

Islam and corona

মুসলমানদের করোনা হবে কি না ? ইসলাম এবং করোনা ভাইরাস

আল্লাহ যখন মরন দিবে তখন আমরা মরব, তাই আমাদের মাস্কের দরকার নাই।

আল্লাহ চাইলে করোনা আমাদের কিছু করতে পারবে না, তাই আমরা এখনো মিছিলে যাব,মিটিং করব,জনসমাগম করব।

আর এতদিন নামাজ পড়ি নাই তো কি এখন মসজিদেই নামাজ পড়ব,মরতে হলে মসজিদেই মরব।

কথাগুলো আমার নয়। দেশের ১৮ কোটি মুর্খ-ধমান্ধ ব্যাক্তিদের। গতকাল আমার এলাকায় একজন করোনা রোগী পাওয়া গিয়েছে,

অথচ এখনো এলাকার মানুষ আল্লাহর কথা বলে সচেতন হচ্ছে না।

তারা বলছে যে, “আল্লাহ যখন মরন দিবে তখন মৃত্যু হবে সুতরাং করোনা কে ভয় পাওয়ার দরকার নেই”।

আমরা বাঙ্গালি কতটা মুর্খ জাতি তা করোনা না আসলে বুঝতাম না। এই অতি আবেগী, মুর্খতার কারনে দেশের আজ এই অবস্থা।

আপনারা আমার কিছু সহজ প্রশ্নের উত্তর দিন,

1.  আল্লাহ যখন মরন দিবে তখন তো মরবেন এ, তাহলে খাওয়া দাওয়া করার দরকার কী?

2.  আল্লাহ যখন মরন দিবে,তখন তো মরবেন এ, তাহলে ৫ তলা বিল্ডিং এর উপর থেকে ঝাপ দিন।

আপনার তো কিছু হবে না? তাই না?  কারন আল্লাহর হুকুম ছাড়া তো আপনার কিছু হবে না। তাই না?

3.  আপনি মসজিদে গিয়ে বৈদ্যুতিক তার স্পর্শ করেন,আপনাকে তো শক করবে না।

কারন আল্লাহর ঘড়ে তো আপনাকে বৈদ্যুতিক শক করতে পারে না,তাই না?

মুর্খতার একটা সীমা থাকা উচিত।

হাদিসে বলা হয়েছে,

“যদি তোমরা শুনতে পাও যে, কোনো জনপদে প্লেগ বা অনুরূপ মহামারীর প্রাদুর্ভাব ঘটেছে ,

তবে তোমরা তথায় গমন করবে না। আর যদি তোমরা যে জনপদে অবস্থান করছ তথায় তার প্রাদুর্ভাব ঘটে

তবে তোমরা সেখান থেকে বের হবে না। (বুখারী, আস-সহীহ ৫/২১৬৩; মুসলিম, আস-সহীহ ৪/১৭৩৮, ১৭৩৯) “

ইসলামে ইচ্ছাকৃত ভাবে নিজের ক্ষতি করা পুরোপুরি নিষিদ্ধ।

“ মহানবী (স:) একবার বজ্রবৃষ্ঠির কারনে বেলাল (রাঃ) কে  আযানে যুক্ত করতে বলেন যে যেন সবাই বাসায় নামাজ পড়ে।“

আর এখন মহামারীর সময় আমরা নবী রাসুলদের নির্দেশের কথা ভুলে নিজের আবেগ দিয়ে ইসলাম ধর্ম কে ব্যাখ্যা করতেছি।

সুতরাং মুসলমানদের করোনা হবে না,এই ধরনের ভ্রান্ত ধারণা থেকে আমরা বেরিয়ে আসব।

সাধারন দিনগুলোতে মসজিদে নামাজি ১ লাইন না হলেও এখন করোনার সময় ৫ সারি নামাজি দেখে কি মনে হয় যে আপনি আল্লাহকে ভালোবাসেন?

এই করোনা গেলে তো আবার নামাজ ছেড়ে দিবেন।
যদি সত্যিই আল্লাহকে ভালোবাসেন তাহলে এই সময়ে বাসায় নামাজ পড়ুন

আবার মহামারী চলে গেলে মসজিদে প্রতিদিন ৫ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করবেন।

এখনো সময় আছে সাবধান হন,এসব মুর্খতা ছাড়েন। ইসলাম একটি শান্তির ধর্ম।

এখানে আল্লাহ এমন কোনো কিছু করতে বলে নি যা আমাদের বিপদের দিকে নিয়ে যেতে পারে।

এখনো যদি সচেতন না হন,তাহলে কিছুদিন পর আপনার বাব,মা,পরিবার স্বজনদের বিপদের দিন দেখার জন্য বসে থাকুন।

বিস্তারিত জানতে নিচের video ২ টি দেখতে পারেন- Video 1       Video 2

Nahid Hasan

University of Rajshahi

CEO of Nahid24

4 thoughts on “মুসলমানদের করোনা হবে কি না । ইসলাম এবং করোনা ভাইরাস”

Leave a Comment

Your email address will not be published.

ten − 10 =

Scroll to Top